Logo
ব্রেকিং :
নাগরপুরে খেজুর রস আহরণে ব্যস্ত গাছিরা টাঙ্গাইলে আশ্রয়ণের ঘরে ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল, দিশেহারা ৪০ পরিবার ধানের বাজারমূল্যে খুশি কৃষক, পরিবারে উৎসব জ্বলছে আগুন পুড়ছে কাঠ, ইটের ভাটায় সর্বনাশ নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস পালন উপলক্ষে টাঙ্গাইলে মহিলা পরিষদের সংবাদ সম্মেলন নেত্রকোনায় ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নাগরপুরে আওয়ামীলীগ নেতা হিমু’র উদ্যোগে বড় পর্দায় বিশ্বকাপ ফুটবল দেখার ব‍্যবস্থা গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত  উন্নয়নের জন্য নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী নদী ভাঙ্গন রোধে দুই হাজার কোটি টাকার প্রকল্প একনেকে পাশ হলে কাজ শুরু হবে– -দূর্জয়
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

এবার মোদির উপদেষ্টার পদত্যাগ

রিপোর্টার / ৩৪ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮

কালের কাগজ ডেস্ক::১১ ডিসেম্বর ,মঙ্গলবার । ।

সোমবার পদত্যাগ করেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর উর্জিত প্যাটেল। পরের দিন পাঁচ রাজ্যে মোদির ভরাডুবি। এরই মধ্যে এবার পদত্যাগ করেছেন মোদির অর্থনেতিক উপদেষ্টা কমিটির সদস্য সুরজিত ভল্লা।

মোদি সরকারের অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা কমিটি থেকে সুরজিত ভল্লার পদত্যাগের বিষয় মঙ্গলবার তিনি নিজেই সামাজিকমাধ্যমে জানিয়েছেন। সুরজিত ভল্লার টুইটারে এ তথ্য জানান।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারের সঙ্গে মতবিরোধের জেরে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক-রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার গভর্নর উর্জিত প্যাটেল সোমবার পদত্যাগ করেছন।

ভারত সরকার রিজার্ভ ব্যাংকের উদ্বৃত্ত তহবিল থেকে টাকা চেয়ে উর্জিত প্যাটেলের ওপর চাপ বাড়িয়েছিল। এ ছাড়া ব্যাংকিংব্যবস্থায় নগদের জোগান নিয়েও দুপক্ষের মধ্যে মতপার্থক্য দেখা দেয়।

এদিকে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে তিন রাজ্যে ক্ষমতাসীন দল বিজেপি ভরাডুবির পথে। রাজস্থান, ছত্তিশগড়ে ও তেলেঙ্গানায় বিপুল ভোটে এগিয়ে আছে মোদিবিরোধীরা। আর মধ্যপ্রদেশে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে।

ভারতীয় গণমাধ্যমে খবরে বলা হয়েছে, ক্ষমতাসীন দল অন্তত তিনটি রাজ্যে ক্ষমতা হারাচ্ছে। এর মধ্যে রাজস্থান ও ছত্তিশগড়ে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার পথে কংগ্রেস। আর তেলেঙ্গানায় দুই দলই তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির কাছে ধরাশায়ী হচ্ছে। আগামী লোকসভা নির্বাচনের আগে গুরুত্বপূর্ণ এসব রাজ্যে বিজেপির ভরাডুবি মোদির জন্য অশনিসংকেত হিসেবে দেখছেন রাজনীতি বিশ্লেষকরা। এই নির্বাচনের ফলে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে কংগ্রেস শক্তিশালী হচ্ছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই বিজেপির ভরাডুবির খবর আসতে থাকে বলে খবর প্রকাশ করে এনডিটিভি। এনডিটিভির শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বলা হয়েছে, মধ্যপ্রদেশের ২৩০টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস ১১৬টি আসনে এগিয়ে ছিল। বিজেপি এগিয়ে ছিল ১০৪টি আসনে।

এদিকে রাজস্থান আর ছত্তিশগড়ে কংগ্রেস একচেটিয়াভাবে এগিয়ে রয়েছে। ছত্তিশগড়ের ৯০টির মধ্যে কংগ্রেস এগিয়ে ৬৬টিতে, বিজেপি মাত্র ১৪টিতে। অন্যদিকে ১৯৯টি আসনের মধ্যে ১০৩টিতে কংগ্রেস এগিয়ে আছে, বিজেপি এগিয়ে মাত্র ৬৯টিতে।

এ প্রেক্ষিতে মমতা বলেন, পাঁচ রাজ্যে বিজেপির যা ফল হয়েছে, তাতে তাদের পক্ষে আর ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব নয়। মে মাসের মধ্যে ভোট শেষ করতে হবে। জানুয়ারি থেকেই সেই ভোটের আবহ তৈরি হয়ে যাবে। আর এই নির্বাচনে মানুষ বুঝিয়ে দিয়েছেন তারা আর বিজেপিকে চাইছেন না।

মমতা বলেন, উত্তর-পূর্ব ভারত, পূর্ব ভারতের কোথাও বিজেপির শক্তি নেই। বিহারে লালুপ্রসাদের যাদবের ভোটে জিতে নীতিশ বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন। ফলে বিজেপি ক্রমশ দেশ থেকে নিশ্চিহ্ন হতে শুরু করেছে।

কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com