Logo
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

মানিকগঞ্জের তিন মানিকের জন্য ভোট চাইলেন– শেখ হাসিনা

রিপোর্টার / ৩২ বার
আপডেট বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮

 কামরুল হাসান খান,মানিকগঞ্জ থেকে:১৩ ডিসেম্বর,বৃহস্পতিবার ।
আপনাদের মানিকগঞ্জে অনেক মানিক আছে। সেখান থেকে আমরা তিনটি মানিক কুড়িয়ে নিয়েছি। আজকে আমাদের এই অঞ্চলের প্রার্থী ক্রিকেটার নাইমুর রহমান দুর্জয় একটা মানিক। সেইসঙ্গে সঙ্গীত জগতের মমতাজ সেও আরেকটা মানিক। আমি কয়েকটা মানিক কুড়িয়ে নিয়েছি। এখন আপনাদের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই।’
আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের ভোট দিয়ে নৌকাকে জয়যুক্ত করার জন্য এভাবে মানিকগঞ্জবাসীর প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) পাটুরিয়া ঘাটে এক নির্বাচনি পথসভায় তিনি এসব বলেন।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, `আপনারা নৌকায় ভোট দেবেন ওয়াদা করেন। নৌকায় ভোট দিলেই দেশের উন্নয়ন পাবেন। আজকে উন্নয়নের যে যাত্রা শুরু করেছি উন্নয়নের এ গতি যেন থেমে না যায়। ওই লুটেরা দুর্নীতিবাজ। যারা অর্থ আত্মসাৎ করে, যারা এদেশের সম্মান নষ্ট করে তারা কেউ যেন ভোট না পায়। নৌকা দেবে উন্নয়ন, নৌকা দেবে গতিশীলতা। নৌকা করবে এ দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন।’
আওয়ামী লীগ তরুণ প্রজন্মকে আগামী নির্বাচন উৎসর্গ করে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তরুণ সমাজের জন্য আমরা আমাদের এবারের নির্বাচন উৎসর্গ করেছি। তরুণদের মেধা শক্তি কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ হবে উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ।’
এছাড়া আওয়ামী লীগ জয়ী হয়ে ক্ষমতায় এলে মানিকগঞ্জে পাটুরিয়ায় আন্তর্জাতিকমানের স্টেডিয়াম ও আরিচায় বিশেষ ইকোনমিক জোন ও দ্বিতীয় পদ্মাসেতু বাস্তবায়ন করার প্রতিশ্রুতি দেন প্রধানমন্ত্রী।
উল্লেখ্য, নৌকার প্রার্থী হিসেবে মানিকগঞ্জ-১ আসন থেকে নাইমুর রহমান দুর্জয়, মানিকগঞ্জ-২ আসন থেকে মমতাজ বেগম ও মানিকগঞ্জ-৩ থেকে জাহিদ মালেক আসন্ন সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।পরে বিকেল ৪টায় মানিকগঞ্জ বাসষ্ট্যান্ডের পথসভায় যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। বিকেল ৫ টার দিকে সাভারের উদ্দেশ্যে রওনা হন তিনি।
এর আগে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  রাজবাড়ীতে পথসভায় ভাষণ দেন। ফরিদপুর সদরের এক পথসভায় শেখ হাসিনা ফরিদপুরকে বিভাগ করার প্রতিশ্রুতি দেন। তিনি বলেন, আপনাদের দাবি করতে হবে না, আমি আগেই আপনাদের এলাকায় এসে কথা দিয়েছিলাম, ফরিদপুরকে বিভাগ করে দেবো। এর জন্য তো একটি প্রক্রিয়া আছে। একটা জেলা নিয়ে তো বিভাগ হয় না। সেজন্য অন্যান্য জেলার সঙ্গে আলোচনা চলছে। আমরা ক্ষমতায় এলে সেই প্রক্রিয়া শেষ করে ফরিদপুরকে বিভাগ করব।
ফরিদপুরের ভাঙ্গায় আরেক পথসভায় তিনি বলেন, বিজয়ের মাসের ৩০ তারিখে নির্বাচন। এ নির্বাচনে আপনাদের কাছে আমার আহ্বান, আপনাদের এই এলাকায় আমরা প্রার্থী দিয়েছি, যিনি নৌকা মার্কায় নির্বাচন করছেন। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি। সেই মনোনীত প্রার্থীকে ভোট দিয়ে আপনারা জয়যুক্ত করবেন, যেন এই বাংলাদেশকে আমরা জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে পারি।
উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দ্বিতীয় দিনের মতো নির্বাচনি প্রচারণা চালাচ্ছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। বুধবার (১২ ডিসেম্বর) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেন তিনি। পরে বুধবার বিকেলে জেলার কোটালীপাড়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক জনসভায় বক্তব্য রাখেন। পরে সন্ধ্যায় টুঙ্গিপাড়া উপজেলা ও স্থানীয় ইউনিয়নগুলোর আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি।
বুধবার রাতে টুঙ্গিপাড়ায় পৈতৃক বাড়িতে রাত্রিযাপন করে সকালে ঢাকার পথে রওনা দেন শেখ হাসিনা। পথে একাধিক জনসভা করে শেখ হাসিনা রাতেই ঢাকায় ফিরেছেন।
কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com