Logo
ব্রেকিং :
লোহাগড়ায় চুরির অভিযোগে দুই যুবককে গাছে বেঁধে নির্যাতনঃ ভিডিও ভাইরাল সাটুরিয়ায় ধান কাটার শ্রমিককে গলা কেটে হত্যা । দুই শ্রমিক গ্রেফতার এলাকাবাসীর প্রতিরোধে ড্রেন নির্মানের নিম্নমানের ইট সরাতে বাধ্য হলো ইউপি চেয়ারম্যান  রাণীশংকৈলের  দুই খালাতো ভাই ও ইউপি সদস্যসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-৩ নাগরপুরে তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ বিষয়ক প্রশিক্ষণ নড়াইলে শ্রমিক সংকটে কৃষকদের পাশে ৩১৫জন শিক্ষার্থী, তিনদিন ধরে ধানকাটা উৎসব কালিয়ায় নিখোজ স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার নড়াইলের নিরিবিলি পিকনিক স্পট থেকে অবৈধ বন্যপ্রাণী উদ্ধার ২৫ হাজার টাকা জরিমানা নড়াইলে ভ্যান ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে কলেজ ছাত্রের মৃত্যু আহত -৬ মির্জা ফখরুলরা স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ পাকিস্তান বানাবে এখন স্বপ্ন দেখছে শ্রীলংকা বানাবে –দুর্জয়
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

রাজশাহীকে বলে কয়েই হারাল কুমিল্লা

রিপোর্টার / ১ বার
আপডেট শুক্রবার, ১১ জানুয়ারী, ২০১৯

কালের কাগজ ডেস্ক:১১ জানুয়ারী,শুক্রবার ।

রাজশাহী কিংসকে মাত্র ১২৪ রানে গুঁড়িয়ে দিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে জয়ের রাস্তাটা তৈরি করে দিয়েছিলেন বোলাররা। ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব ছিল বোলারদের সেই দুর্দান্ত বোলিংয়ের মর্াদা রাখা। কুমিল্লার ব্যাটসম্যানরা তা রাখতে পেরেছেন। এনামুল হক, এভিন লুইস তামিম ইকবালদের ব্যাটে চড়ে অনায়াসেই জিতেছে কুমিল্লা। ৫ উইকেট হারিয়ে ৮ বল বাকি থাকতেই পৌঁছে গেছে লক্ষ্যে (১৩০/৫)।

৩ ম্যাচে কুমিল্লার এটা দ্বিতীয় জয়। দারুণ এই জয়ে তারা উঠে গেল পয়েন্ট তালিকার ৩ নম্বরে। অন্যদিকে ৩ ম্যাচে রাজশাহীর এটা দ্বিতীয় হার। ফলে মেহেদী হাসানের মিরাজের দল পড়ে রইল পয়েন্ট তালিকার ৬ নম্বরেই।

টুর্নামেন্টের নিয়ম মেনেই টস জিতে প্রতিপক্ষ রাজশাহীকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠান এই ম্যাচে কুমিল্লার অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পাওয়া ইমরুল কায়েস। তিনি যে প্রত্যাশায় প্রথমে বোলারদের হাতে বল তুলে দেন, কুমিল্লার বোলাররা তার চেয়েও ভালো করেছেন। রাজশাহীর কম রানে গুটিয়ে যাওয়াতেই তার প্রমাণ।

সাইফুদ্দিন, শহীদ আফ্রিদি, লিয়াম ডসন, আবু হায়দার রনিদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে এক পর্ায়ে মাত্র ৬৩ রানেই ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলে রাজশাহী। এরপরও শেষ পর্ন্ত ১৮.৫ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে ১২৪ পর্ন্ত যেতে পেরেছে শ্রীলঙ্কান ইসুরু উদানার কল্যাণে। নবম ডাউনে নেমে তিনি খেলেন দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩২ রানের ইনিংস। ৩০ বলের ইনিংসটিতে ৫টি চারের সঙ্গে একটি ছক্কা মারেন তিনি।

এছাড়া অধিনায়ক মিরাজ ১৭ বলে ৩০, জাকির হোসেন ২৬ বলে ২৭, মোহাম্মদ হাফিজ ১৭ বলে ১৬ রান করেন। রাজশাহীর তিনজন ব্যাটসম্যান মেরেছেন গোল্ডেন ডাক! মানে প্রথম বলেই আউট হয়েছেন তিনজনে। একটা দলকে ডুবাতে আর কি লাগে!

কুমিল্লার পক্ষে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নেন পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি। ৪ ওভারে মাত্র ১০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন তিনি। এছাড়া সাইফুদ্দিন, রনি ও ডসন নেন ২টি করে উইকেট।

১২৫ রানের মামলি জয়ের লক্ষ্যে কুমিল্লা উদ্বোধনী জুটিতেই পেয়ে যায় ৮৫ রান। এরপর অবশ্য দুই ওপেনারই যুগপত বিদায় নেন। ২১ বলে ২৮ রান করে প্রথমে আউট হন ক্যারিবীয় ওপেনার লুইস। এনামুলও তাকে অনুসরণ করেন দ্রুত। তবে রানআউটের খড়্গে কাটা পড়ার আগে এনামুল ৩২ বলে করেন ৪০ রান।

এরপর তামিম (২১), ইমরুল (৬), শোয়েব মালিকরা (২) দ্রুত আউট হলেও কুমিল্লার জয় ধরতে বেগ পেতে হয়নি। আফ্রিদি, ডসন মিলে দলকে নিয়ে গেছেন কাঙ্খিত ঠিকানায়। আফ্রিদি ৯ ও ডসন করেছেন অপরাজিত ১১ রান। শেষে যখন দরকার ছিল ১ রান, আফ্রিদি তখন ছক্কা মেরে দিয়েছেন।

কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
ThemeCreated By ThemesDealer.Com