Logo
ব্রেকিং :
পাথরে বিটুমিন মিক্সার ফ্যাক্টরির বয়লারে আগুন, রক্ষা পেল মার্কেট, শত শত মানুষ  ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নতুন সভাপতি নোমানি, সম্পাদক সোহেল তাড়াশে বিএনপি’র ১২০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলাঃ গ্রেফতার-৫ নগরকান্দায় নব নির্বাচিত সাংসদকে গন সংবর্ধনা নগরকান্দা আশ্রায়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলে বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা চোর না শোনে ধর্মের কাহিনী, তাই আ’লীগ জনগণের মনোভাবের মূল্যায়ন করছেনা – সৈয়দপুরে  ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন  দৌলতপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা দৌলতপুরে উপকারভোগীদের মাঝে টিউবওয়েল বিতরন দৌলতদিয়ায়  নেশাগ্রস্থ অবস্থায় মাদক কারবারি গ্রেফতার  মানিকগঞ্জ জেলা যুব দল নেতা মাসুদ পারভেজ আটক
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা: চার ভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড

রিপোর্টার / ২৫ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী, ২০১৯

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি  :২২ জানুয়ারী,মঙ্গলবার।

সিরাজগঞ্জ শহরে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী ও তার তিন ভাইকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- স্বামী সুবির কুমার রায়, ডা. সুশীল কুমার রায়, সুনীল কুমার রায়, মনোরঞ্জন কুমরা রায়।

জানা যায়, ১৯৯৯ সালে সিরাজগঞ্জ শহরের সুবির কুমার রায়ের সঙ্গে টাঙ্গাইলের সুমি রানীর বিয়ে হয়। বিয়ের সময় দাবীকৃত ৫ লাখ টাকা যৌতুকের মধ্যে আড়াই লাখ টাকা দেয় মেয়ে পক্ষ। বাকি টাকার জন্য সুমিকে নির্যাতন করতে থাকেন সুবির কুমার রায় ও তার পরিবার।

২০০১ সালের ১২ জানুয়ারি যৌতুকের বাকি টাকার জন্য সুমিকে চাপ দিলে তিনি তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে অস্বীকার করেন। এরপর গৃহবধূর স্বামী সুবির কুমার রায়, ডা. সুশীল কুমার রায়, সুনীল কুমার রায়, মনোরঞ্জন কুমরা রায় সুমিকে গলা টিপে ও মারপিট করে হত্যা করেন।

এ ব্যাপারে মনোরঞ্জন রায় সুমি রানী আত্মহত্যা করেছেন বলে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় মিথ্যা জিডি করেন। ময়নাতদন্তে সুমিকে হত্যা করা হয়েছে বলে রিপোর্ট আসায় থানার এসআই মনিরুল ইসলাম ২০০১ সালের ১৫ জানুয়ারি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর সুবির, সুশীল, ডা. সুনিল, মনোরঞ্জন আত্মগোপনে যান। বাদী পক্ষের ১২ জন সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে বিচারক এ রায় দেন।

রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের বিশেষ পিপি শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু, বিশেষ এপিপি আনোয়ার পারভেজ লিমন। আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন রাষ্ট্র নিযুক্ত স্টেট ডিফেন্স অ্যাড. এসএম জাহাঙ্গীর আলম।

কালের কাগজ/প্রতিবেদক/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com