Logo
ব্রেকিং :
সরকার পরিবর্তন করার একমাত্র পথ নির্বাচন: পরিকল্পনামন্ত্রী সিরাজগঞ্জের তাড়াশে গৃহবধূকে হত্যা শ্বশুড়-শ্বাশুড়ি আটক সিরাজগঞ্জে বহুলীতে মতিয়ার রহমান মিঞা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপন নেত্রকোনায় আর্ন্তজাতিক সিওড দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা নবনিযুক্ত আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ডিআইজির শুভেচ্ছা ঈশ্বরগঞ্জে যুবমহিলা লীগের সমাবেশ অনুষ্ঠিত নড়াইল জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচনে আলোচনার শীর্ষে শেখ সাজ্জাদ হোসেন মুন্না নাগরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সাথে এমপি টিটুর মতবিনিময় সভা নগরকান্দায় বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সংগ্রহ সভা অনুষ্ঠিত  চৌহালী উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

দুদক এর ভূলে বিনা বিচারে ১ হাজার ৯২ দিন কারা ভোগের পর মুক্তি পেল টাঙ্গাইলের জাহালম

রিপোর্টার / ১৪ বার
আপডেট সোমবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

মুক্তার হাসান, টাঙ্গাইল থেকে ঃ ০৪ ফেব্রুয়ারি,সোমবার ।
দুদক এর ভূলে বিনা বিচারে ১ হাজার ৯২ দিন জেল খাটার পর উচ্চ আদালতের নির্দেশে মুক্ত হলেন টাঙ্গাইলের নাগরপুরের জাহালম। রবিবার রাত ১২টা ৫৮ মিনিটে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে পাটকল শ্রমিক জাহালমকে মুক্তি দেয়া হয়। জাহালম টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধুবুরিয়া গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর ছেলে। জাহালমের তিন ভাই আর তিন বোন। কারামুক্তির পর বড় ভাই শাহানুর মিয়ার সঙ্গে ভোররাত ৪টায় গ্রামের বাড়িতে আসেন জাহালম। মোবাইলের আলোয় রাতের অন্ধকার আর ঘন কুয়াশা স্বত্তেও কারামুক্ত জাহালমকে দেখতে ছুটে আসেন মা মনোয়ারা বেগম। এসময় তিনি কান্নায় ভেঙে পরেন। মা মনোয়ারা ছেলের কপালে চুমু দিয়ে আক্ষেপ করে বলেন, ‘কার মাথায় বাড়ি দিছিলাম যে আমার এত বড় সর্বনাশ করছিল।’ এ সময় আহাজারি করেন জাহালমের ভাইবোন ও স্বজনরাও। আহাজারি শেষে কারামুক্ত জাহালমকে দুধ দিয়ে গোসল করিয়ে ঘরে তোলেন মা মনোয়ারা বেগম।

 

উল্লেখ্য, সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগে মিরপুরের শ্যামলবাংলা আবাসন প্রকল্পের মালিক ঠাকুরগাঁ এর আবু সালেক নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা করে দুদক। এর মধ্যে দুদক কর্মকর্তা আব্দুল্লা আল জাহিদ এই মামলার অনুসন্ধান করেন। তার অভিযোগপত্রে জাহালমের নাম উঠে আসে। এরপর ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারী দুদকের করা এসব মামলায় গ্রেফতার হন তিনি। এরপর থেকে তিন বছর তিনি আবু সালেকের পরিবর্তে জেল খেটেছেন এবং আদালতে হাজিরাও দিয়েছেন। বিষয়টি একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হওয়ারপর হাইকোর্টের আইনজীবি অমিদ দাসগুপ্ত বিষয়টি হাইকোর্টের নজরে আনেন। শুনানী শেষে জাহালমের আটকাদেশ কেন অবৈধ হবেনা জানতে চেয়ে স্বতঃপ্রনোদিত রুল জারি করেন বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। গতকাল রোববারই সোনালী ব্যাংকের ওই অর্থ জালিয়াতির মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়ে হাইকোর্ট তাকে মুক্তি দেয়ার নির্দেশ দেন। কারাগারে কাগজ পৌঁছানোর পর রোববার দিবাগত রাত একটার দিকে কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তিপান জাহালম। সোমবার ভোর রাত চারটা নাগাত টাঙ্গাইলের নাগরপুরের ধবুরিয়া পূর্বপাড়া গ্রামে বড় ভাই শাহানুরকে নিয়ে বাড়ী ফিরেন জাহালম।
এর আগে সকালে বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের বেঞ্চকোনো নির্দোষ ব্যক্তিকে ১ মিনিটও কারাগারে রাখার পে নয়। এই ভুল তদন্তে কোনো সিন্ডিকেট জড়িত কিনা, সিন্ডিকেট থাকলে কারা এর সঙ্গে জড়িত, তা চিহ্নিত করে আদালতকে জানাতে হবে। না হলে আদালত এ বিষয়ে হস্তপে করবে। এ রকম ভুলের দায় দুদক কোনোভাবেই এড়াতে পারে না।’

কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
ThemeCreated By ThemesDealer.Com