Logo
ব্রেকিং :
দৌলতপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালিত ভূঞাপুরে পুত্রবধূর বিরুদ্ধে শ্বাশুরিকে হত্যার অভিযোগ সরিষাবাড়ীতে শেখ হাসিনার জন্মদিনে নতুন কাপড় পেলো ২ শতাধিক দুঃস্থ ও এতিম শিশু ভূঞাপুরে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন নাগরপুরে উপজেলা আ.লীগ আয়োজনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ৭৬ তম জন্মদিন পালিত টাঙ্গাইলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালিত দৌলতদিয়া মডেল হাই স্কুলে অভিভাবক  সভা অনুষ্ঠিত  ঢাবিতে ছাত্রদলের উপর হামলার প্রতিবাদে সৈয়দপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা ঘিওরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালিত নেত্রকোনায় তথ্য অধিকার দিবসের আলোচনা সভা
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

ঐক্যফ্রন্টে পদের আশায় রবের মতিভ্রম, চাইলেন খালেদার মুক্তি

রিপোর্টার / ৭ বার
আপডেট শুক্রবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

কালের কাগজ ডেস্ক:০৮ ফেব্রুয়ারী,শুক্রবার ।

খালেদা জিয়াসহ দলীয় নেতাকর্মীদের মুক্ত করতে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি বাক্য উচ্চারণ করেছেন ঐক্যফ্রন্ট নেতা আ স ম আবদুর রব।

৬ ফেব্রুয়ারি বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

এদিকে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে রবের মতো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বলে দাবি করা নেতার হুমকি দ্বিচারিতা এবং বৃথা আস্ফালন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক এ আরাফাত। তার মতে, রাজনৈতিক সুবিধা আদায় করতে এবং বিএনপির জোর সমর্থন আদায় করে ঐক্যফ্রন্টে গুরুত্বপূর্ণ পদ আদায় করতে রব উচ্চবাচ্য করেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ বিষয়ে আরাফাত বলেন, ঐক্যফ্রন্টে যোগ দেয়ার আগে কিন্তু রব সাহেব বিএনপির ঘোর বিরোধী ছিলেন। নিজেকে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি দাবি করে রব বিএনপিকে জামায়াতের দোসর ভেবে প্রচণ্ড ঘৃণা করতেন। অথচ যখনই নির্বাচন ও সংসদ সদস্য হওয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টি হলো তখন জেনেশুনে বিএনপি-জামায়াতের হাত ধরলেন তিনি। এগুলো রাজনৈতিক ভণ্ডামির অংশমাত্র। রবের মতো মানুষের কোন রাজনৈতিক আদর্শ নেই। ক্ষমতার প্রয়োজনে নিজেকে বিক্রি করতেও লজ্জা পান না তিনি। শুনেছি, ঐক্যফ্রন্টে গুরুত্বপূর্ণ পদ বাগিয়ে নেয়ার জন্য বিএনপি-প্রীতি বাড়িয়েছেন রব। রব যে সুবিধাবাদী নেতা সেটি আবারও প্রমাণ হলো। বিএনপির উচিত হবে রবের কাছ থেকে দূরত্ব বজায় রাখা। কেননা সুযোগ বুঝে আবারও তিনি রঙ পাল্টাতে পারেন।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ বলেন, খালেদা জিয়া যে জনপ্রিয় নেত্রী তা কিন্তু রবের বক্তব্যে প্রমাণ হয়েছে। যারা বিএনপিকে অবজ্ঞা ও অবহেলা করতেন তারাই কিন্তু আজকে বিএনপি নেত্রীর মুক্তির দাবি করছেন। যদিও রব সাহেবের মূল দল আওয়ামী লীগ ছিলো। রব অতীতে বিএনপি-বিরোধী ছিলেন, এখন কিন্তু তিনি বিএনপির অনুরাগী বলা চলে। আমি চাই, ঐক্যফ্রন্টে রবকে ভালো একটি পদ দেয়া হোক। যদিও ম্যাডাম জিয়ার মুক্তির দাবি করায় রবের রাজনৈতিক কৌশল ও নীতি-নৈতিকতা নিয়ে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টে নানা গুঞ্জন চলছে। কিন্তু আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, রব আজ থেকে বিএনপির বন্ধু হিসেবে বিবেচিত হবেন। আশা-করি, বিএনপি-জামায়াত নিয়ে রব কিংবা ড. কামালদের আর সমস্যা হবে না। ঐক্যফ্রন্টে বিএনপি-জামায়াতকে আর কেউ গালি দেবে না। রাজনীতিতে স্থির আদর্শ বলে কিছু নেই। প্রয়োজন সব কিছুকে বৈধতা দেয়।


এ জাতীয় আরো খবর
ThemeCreated By ThemesDealer.Com