Logo
নোটিসঃ
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি : আলহাজ্ব এ.এম নাঈমূর রহমান দূর্জয় ,সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জালাল উদ্দিন ভিকু,সহ-মফস্বল সম্পাদক মো: জাহিদ হাসান হৃদয়

হরিরামপুরের বিল্লাল হোসেন ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী

রিপোর্টার / ৩৭ বার
আপডেট মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

সুরেশ চন্দ্র রায় মানিকগঞ্জ। ১৯ ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার ।
আসন্ন ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার যুবক সমাজের অহংকার জনাব মোঃ বিল্লাল হোসেন ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। ছাত্রলীগের রাজনীতির ব্যানারে তিনি রাজনৈতিক পরিমন্ডলে পদচারনা শুরু করেন। খুব অল্প সময়ে বিল্লাল হোসেন তার আচার আচরণ আর হাস্যোজ্জ¦ল আলাপচারিতায় সকলের প্রিয় পাত্র হয়ে উঠেন। তার সততা নিষ্ঠা আর অন্যায়ের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ নেতৃত্বের উপহার হিসেবে তিনি ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগ, ৩৬ নং পুরানা পল্টন শাখার যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, সদস্য, ঢাকা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এবং থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের জয়েন্ট কনভেইনার সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন ছিলেন।
বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক মতাদর্শে অনুপ্রাণিত এবং শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাবোধের কারনে তিনি জেলা ও উপজেলা নেতৃবর্গের প্রিয় পাত্র হয়ে উঠেন। বর্তমানে বিল্লাল হোসেন হরিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য পদ লাভ করে নিষ্ঠার সাথে দলীয় কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন।
জানা যায়, বিল্লাল হোসেন উপজেলার বয়রা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ সাহেব এর পুত্র। তার পিতা এক সময় নারায়নগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানা শ্রমিকলীগের কোষাধ্যক্ষ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।
হরিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের কতিপয় নেতাকর্মী জানান,একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মানিকগঞ্জ-৩  আসনের এমপি কন্ঠ শিল্পী মমতাজ বেগম এর পক্ষে নেতাকর্মীদের সঙ্গে ব্যাপক গণসংযোগ ও বিজয় নিশ্চত করতে বিল্লাল হোসেন অগ্রণী ভুমিকা পালন করেন । তার রাজনৈতিক কর্মকান্ড ও আচরনের সুবাদে উপজেলায় তার যথেষ্ঠ সুনাম রয়েছে। বিল্লাল তার অর্জিত সুনাম অক্ষুন্ন রেখে সামনের দিকে অগ্রসর হলে তার জয় সুনিশ্চিত।
বয়রা ইউনিয়নের কাউসার মিয়া নামে এক বৃদ্ধ বলেন, হরিরামপুর উপজেলার সর্বস্তরের জনগনের কাছে বিল্লাল একটি জনপ্রিয় নাম। সে সর্বদা অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার। তার আপোষহীন নেতৃত্বে আমরা মুগ্ধ। আসন্ন নির্বাচনে আমরা বিল্লালকে ভাইস চেয়াম্যান পদে জয়যুক্ত করতে চাই।
মোঃ বিল্লাল হোসেন বলেন, জয়ের বিষয়ে আমি শতভাগ আশাবাদী । কারন আমি দলীয় নীতি বহির্ভূত কোন কাজ কখনো করিনি এবং ভবিষ্যতেও করবো না। আমার সিংহভাগ সময় আমি দলের জন্য ব্যয় করি। আমি আমার উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের সুখে দুঃখে পাশে থাকার চেষ্টা করি। মাদক, বাল্যবিবাহ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ কল্পে আমি সব সময় অগ্রনী ভুমিকা রাখার চেষ্টা করি।
তিনি আরো বলেন, বিগত দিনে দলের দুঃসময়ে আমি দলের জন্য আপ্রাণ পরিশ্রম করেছি। জীবন বাজি রেখে আন্দোলন সংগ্রাম সহ যে কোন কর্মসূচিতে আমি স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে অংশ গ্রহন করেছি। বর্তমানে নদী ভাঙ্গন রোধ কল্পে বেরিবাঁধ নির্মান, বিদ্যুতায়ন সহ এলাকার সার্বিক উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা গ্রহন করেছি। আমি বিশ্বাস করি, উপজেলাবাসী আমার কাজের মূল্যায়ন করে আমাকে ভাইস চেয়াম্যান হিসেবে নির্বাচিত করবেন। আমার সেই বিজয় মালা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিয়ে আমি দলের জন্য আজীবন কাজ করে যেতে চাই।
কালের কাগজ/প্রতিনিধি/জা.উ.ভি


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com