সৈয়দপুরে তিনদিন ধরে নিখোঁজ ১০০ শয্যা হাসপাতালের টেকনোলোজিষ্ট

editor ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ সারাদেশ

শাহজাহান আলী মনন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি :০৯ এপ্রিল-২০২১,শুক্রবার।

নীলফামারীর সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হসপাতালের টেকনোলোজিষ্ট আবুল খায়ের মোঃ সাইফুল আলম (৪৯) ওরফে নয়ন তিনদিন ধরে নিখোঁজ।তার পরিবারের লোকজন খুঁজে না পেয়ে বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে সৈয়দপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছে।

ওই টেকনোলোজিষ্টের স্ত্রী মোছাঃ জোসনা বানু জানান, আমার স্বামী নয়ন। তিনি সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে টেকনোলোজিষ্ট হিসেবে রেডিও গ্রাফির দায়িত্ব পালন করছেন। গত ৬ এপ্রিল বেলা সাড়ে ১১ টায় দায়িত্ব পালন করাকালীন সময়ে হাসপাতাল থেকে ব্যাংকের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। এরপর সারাদিন গত হলেও তিনি না ফেরায় ওই অফিসের পিয়নকে জিজ্ঞাসা করা হলে সে জানায়, নয়ন ভাই ব্যাংকের কাজে গেছে।

তবে ৩ দিন গত হলেও তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। এতে টেকনোলোজিষ্টের স্ত্রী-সন্তানসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্য এবং স্বজনরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। তাই বাধ্য হয়ে তিনি সৈয়দপুর থানায় একটি ডায়রি করেছেন।

নয়নের পারিবারিক সুত্র জানায়, সৈয়দপুর শহরের ১১ নং ওয়ার্ডের নতুন বাবু পাড়ার তহশীল অফিস সংলগ্ন এলাকায় স্ত্রী ১ ছেলে ও ১ মেয়ে নিয়ে বসবাস করেন। তবে এ চাকরির পাশাপাশি তিনি নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের সিঙ্গেরগাড়ি এলাকায় গ্রামের বাড়ির জমিজমা চাষাবাদসহ একটি মুরগীর খামার করেছেন। আর এ সকল দেখাশোনায় তিনি ডিউটি শেষে নিয়মিত যাতায়াত করতেন।

এ ছাড়া ওই এলাকায় স্থানিয় বাজারে নিজস্ব জমিতে কয়েকটি দোকান নির্মাণ করেছেন। পরিবারের ধারনা এ সকল সম্পদের কারণে স্থানিয়দের সাথে কোন বিরোধ হতে পারে। আর এরই জের ধরে কেউ তাহাকে পরিকল্পিত ভাবে অপহরন করেছে। তবে এ ধরনের কোন বার্তাও পাননি পরিবারটি। এতে সকলে হতাশ হয়ে পড়েছেন।

এ দিকে, রেডিও গ্রাফার নয়নকে তিনদিন কর্মস্থলে উপস্থিত না পেয়ে হাসপাতালটির আরএমও ডাঃ ওমেদুল হক মোবাইল ফোনে প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিতির কারণ জানতে চান। পরিবারের কাছ থেকে এ ঘটনা শুনে তিনিও মুষড়ে পড়েন।

এদিকে ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়লে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। দ্রুত তার খােজ বের করার জন্য প্রশাসনের প্রতি সর্বস্তরের লোকজন দাবী জানিয়েছেন।

সম্প্রতি সংবাদ